পরীক্ষামূলক ফেরি চালিয়ে সফলতা না পাওয়ায় অনিশ্চয়তাই থেকে গেলো ফেরি চলাচল

100

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি

পরীক্ষামূলক ফেরি চালিয়ে সফলতা না পাওয়ায় অনিশ্চয়তাই থেকে গেলো শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে ফেরি চলাচল। বৃহস্পতিবার বেলা পোনে ১২টার দিকে ফেরি কুঞ্জলতা ৫টি ছোটগাড়ী ও ২৯টি মোটর সাইকেল নিয়ে শিমুলিয়া ঘাট থেকে বাংলাবাজার ঘাটের উদ্দেশ্যে পরীক্ষামূলকভাবে ছেড়ে যায়। এসময় বিআইডব্লিউটিসি, বিআইডব্লিইটএ, সেতু কর্তৃপক্ষ ও পদ্মা সেতুর নিরাপত্তায় থাকা সেনাবাহিনীর সদস্যসহ একটি পর্যবেক্ষক দল ফেরিটিতে ছিল।
পর্যবেক্ষক দলে থাকা বিআইডব্লিউটিসি’র পরিচালক বানিজ্য মো. আশিকুজ্জামান জানান, ৩দিন বন্ধ থাকার পর বিআইডব্লিউটিসি কর্তৃপক্ষ শিমুলিয়া-বাংলাবাজর নৌরুটে আবারো ফেরি চলাচলের উদ্যোগ নেয়। বৃহস্পতিবার ফেরি কুঞ্জলতা নিয়ে পরীক্ষামূলক ফেরি চালিয়ে দেখে পর্যবেক্ষক দল। কিন্তু পদ্মায় এখনও স্রোতের বেগ রয়েছে। যা ফেরি চলাচলের জন্য ঝুকিপূর্ণ। স্রোতের টানে আবারো ফেরি পদ্মা সেতুর পিলারে আঘাত করতে পারে। তাই পর্যবেক্ষক দল মনে করে পদ্মা সেতুর নীচ দিয়ে এখনই ফেরি চলাচল সেতুর নিরাপত্তার জন্য সমীচিন নয়। তবে আগামী সপ্তায় আবারো পরীক্ষামূল ফেরি চালিয়ে দেখা হবে ফেরি চলাচল সচল করা যায় কিনা।
এর পূর্বে গত সোমবার হতে পদ্মায় স্রোতের গতি বেশী থাকায় পদ্মা সেতুর নিরাপত্তার স্বার্থে এ নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ। তারও পর্বে দীর্ঘ ৪৬ দিন বন্ধ থাকার পর গত ৪ অক্টোবর পরীক্ষামূল ফেরি চলাচলের মাধ্যমে ৫ অক্টোবর হতে এ নৌরুটে ফেরি চলাচল শুরু হলেও ৭ দিনের মাথায় তা আবারো বন্ধ হয়ে যায়।
উল্লেখ্য গত আগষ্ট মাসে পদ্মায় প্রচুর স্রোতের কারণে পদ্মা সেতুর পিলারে কয়েক দফা আগাত করে ফেরি। এতে পদ্মায় সেতুর নিরাপত্তা ঝুকিপূর্ণ হয়ে পড়লে কর্তৃপক্ষ ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয়।#