মুন্সীগঞ্জে উদ্ধারকৃত কংকাল থেকে হত্যার রহস্য বের করলো পিবিআই

42
????????????????????????????????????

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলায় এক নারীর কংকাল উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর পিবিআই মামলাটি গ্রহন করে তদন্ত শুরু করে। মরদেহ উদ্ধারের এক মাস পর রহস্য উদঘাটন করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে জেলা কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে সংস্থাটি এ তথ্যটি নিশ্চিত করেছে।
নিহত কুলসুম বেগম(৩৫) উপজেলার পূর্ব রুশদী গ্রামের আলী আকবর মোড়লের মেয়ে। সে পূর্ব হাসাড়গাও গ্রামে বসবাস করছিল। মূল আসামি সুমন শেখও(৩১) একই গ্রামের আলী হোসেনের ছেলে।
জানা যায়, গত ৫ ফেব্রæয়ারি দুপুরে হাসাড়গাঁও গ্রামের জমিতে এক নারীর হাড়, মাথার খুলি, স্যান্ডেল, মাথার ক্লিপ ও ছেড়া ফাড়া কাপরের অংশ পাওয়া যায়। যা দেখে কুলসুমের ছেলে কামরুল তার মায়ের মরদেহ নিশ্চিত করে। এই ঘটনায় অজ্ঞাতনামা আসামি করে ৭ ফেব্রæয়ারি তার ছেলে শ্রীনগর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

????????????????????????????????????

সংবাদ সম্মেলন করে পিবিআই জানিয়েছে, ১৭ জানুয়ারি মায়ের বাসা থেকে নিজ বাসায় যাচ্ছিল কুলসুম। এরপর পরিবারের সদস্যরা তার মোবাইল ফোন বন্ধ পায়। এর আগে তার ছেলে মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর চলে যায় কর্মস্থলে যোগ দিতে। কুলসুমের মোবাইল বন্ধ পেয়ে তার আতœীয় স্বজনরা খোঁজাখুঁজি করতে থাকে। ৫ ফেব্রæয়ারি বিকাল ৩ টার দিকে স্থানীয় গ্রামের এক ব্যক্তি ফোন করে কামরুল হাসানকে জানায় পূর্ব হাসাড়গাও গ্রামে তার বাবার জমিতে হাড়, মাথার খুলি, স্যান্ডেল, মাথার ক্লিপ ও ছেড়া ফারা কাপরের অংশ পাওয়া গেছে। তখন কামরুলের বোন ইসরাত জাহান অরিন লাশের সাথে থাকা এসব দেখে শনাক্ত করে। এরপর উক্ত বিষয়টি শুনে মানিকগঞ্জ থেকে ঘটনাস্থলে এসব কামরুলও নিশ্চিত করে। এরপর পিবিআই ৭ ফ্রেুরি এ মামলাটি গ্রহণ করে।


পিবিআই আরো জানান, গোপণ সূত্র ও আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে ঘটনায় অভিযুক্ত সুমন শেখকে সনাক্ত করে। ১৮ ফেব্রæয়ারি সকাল ১১ টার দিকে সিরাজদিখান উপজেলার রামকৃষ্ণদি বাজার এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, পিবিআইয়ের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনোয়ারুল হক, মামলাদ তদন্তকারী কর্মকর্তা মোহাম্মদ এমদাদুল হক প্রমুখ।#