লৌহজংয়ে ডাচ ডেইরি খামার পরিদর্শণে তিন দেশের রাষ্ট্রদূত

148

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি

বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রাজিলের রাষ্ট্রদূত জোয়াও তাবাজারা ডি ওলিভেইরা জুনিয়র বলেছেন, বাংলাদেশ এখনো দুগ্ধ উৎপাদনে শতভাগ স্বয়ংসম্পূর্ণ নয়, তবুও যত বেশি দুগ্ধ উৎপাদন করতে পারবে তত কম আমদানি করবে। এতে অর্থনৈতিকভাবে বাংলাদেশ শক্তিশালী হবে। তিনি গতকাল শনিবার মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে আধুনিক প্রযুক্তি সমৃদ্ধ গরুর খামার ডাচ ডেইরি ফার্ম পরিদর্শন শেষে এ কথা বলেন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত কসোভোর রাষ্ট্রদূত গুনার ইউরিয়ার ও মালদ্বীপের রাষ্ট্রদূত শিরুজিমাত সামির।
ব্রাজিলের রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, ডাচ ডেইরি ফার্ম খুবই উৎপাদনশীল। এখানে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। এটি একটি আদর্শ ও মডেল খামার। ব্রাজিলের আবহাওয়া বাংলাদেশের চেয়েও বেশ গরম। আমি বিশ্বাস করি ব্রাজিলের গবাদিপশু এখানে নিজেদের মানিয়ে নিতে পারবে এবং তারা বেশ উৎপাদনশীল হবে।
গতকাল দুপুর ২টার দিকে তাঁরা ফার্মটি পরিদর্শণে এলে ডাচ ডেইরি লিমিটেডের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর মো. জিল্লুর রহমান রিপন মৃধা ও প্রধান নির্বাহী ও পরিচালক গিয়াসউদ্দিন তাদের ফার্মটি ঘুরিয়ে দেখান।
এবা গ্রুপের সিস্টার কনসান ডার্চ ডেইরি লিমিটেডের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর মো. জিল্লুর রহামান রিপন মৃধা জানান, মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে বেসরকারি উদ্যোগে তারা প্রায় ১২৫ একর জমিতে নির্মাণ করেছেন আধুনিক মডেলের খামার ডাচ ডেইরি ফার্ম। খামারটিতে বর্তমানে দেশি বিদেশি ১২ শতাধিক গরু পালন করা হচ্ছে। খামারটিতে ব্যবহার করা হচ্ছে বিভিন্ন আধুনিক প্রযুক্তি। বর্তমানে প্রতিদিন ২ হাজার ২০০ লিটার দুধ উৎপাদন হয় খামারটিতে। সম্পূর্ণ আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে এখানে গরু, ছাগল ও ভেড়াসহ নানা প্রকৃতির পশু পালন করা হচ্ছে। এসব পশুদের চিকিৎসায় নিজস্ব প্রানী সম্পদ ডাক্তার রয়েছে। নিয়মিত চেকাপের মাধ্যমে আদর যত্ন করে এসব পশু পালন করা হচ্ছে। বিদেশী কয়েক প্রজাতির গরুর পাশাপাশি দেশীয় গরুও লালন পালন করা হয় খামারটিতে।#