লৌহজংয়ে ব্যারিকেট ভেঙে বাল্কহেড চলায় উপজেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় ক্ষোভ

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি

কিছুতেই নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছেনা অবৈধ বালুবাহি বাল্কহেড। খালের মাঝে বাঁধ দিয়েও এদের বেপরোয়া গতি ঠেকানো যাচ্ছেনা। প্রশাসনকে উপেক্ষা করে বাঁধ ভেঙে তারা চলাচল করছে বীর দর্পে। এ নিয়ে গতকাল সোমবার লৌহজং উপজেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভায় ব্যাপক ক্ষোভ প্রকাশ করে লৌহজং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল আউয়াল।
তিনি সভাকে জানান, বালিগাঁও-গৌরগঞ্জ খাল দিয়ে পদ্মা থেকে অবৈধ বালু নিয়ে বিশাল আকারের বাল্কহেডগুলো চলাচল করছিল। এসকল বাল্কহেডের ঢেউয়ে ও বাল্কহেডগুলো নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খালে তীরে আঘাত করায় আশে পাশের এলাকায় ভাঙনের ফলে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছিল। হাট-বাজার, মসজিদ মাদ্রাসাসহ বিস্তীর্ণ এলাকা ভাঙনের ফলে ক্ষতির সম্মুখিন হয়। জনগণের জান-মাল রক্ষায় সপ্তাহ দুই পূর্বে এ খালে বাল্কহেড চলাচল নিয়ন্ত্রণ করতে বাঁশ দিয়ে ব্যারিকেট দেয়া হয়। কিন্তু নিয়ন্ত্রণহীন এসকল বাল্কহেডের মালিকরা ব্যারিকেট ভেঙে এ খাল দিয়ে আবারো বাল্কহেড চলাচল শুরু করে এতে হুমকির মুখে পড়ে আশেপাশের এলাকা।
ইউএনও জানান, এখন থেকে খালের প্রবেশ মুখে পদ্মা কাছে বাঁধ দেয়া হবে। এবং এখানে সর্বক্ষনিক পাহারার ব্যবস্থা করা হবে। এর পরেও যদি তারা এ খাল দিয়ে চলাচলের চেষ্টা করে, তবে আর কোন প্রকার ছাট দেয়া হবেনা। প্রশাসন এখন থেকে কঠোর ভূমিকা পালন করবে।
এছাড়া পদ্মা সেতুর টোল প্লাজার কাছে অবৈধ দোকান-পাট উচ্ছেদ, সেখানে পাবলিক টয়লেট ও বাস স্ট্যান্ড নির্মাণ, মাদক নিয়ন্ত্রণ, বাল্য বিয়ে ও শিমুলিয়া ঘাটে অবৈধ জুয়া খেলা নিয়ে আলোচনা হয়।
লৌহজং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল আউয়ালের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ¦ মো. ওসমান গণি তালুকদার। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব রাখেন ভাইস চেয়ারম্যান মো. তোফাজ্জল হোসেন তপন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রিনা আক্তার, বিক্রমপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. মাসুদ খান, পদ্মা সেতু উত্তর থানার ওসি মো. আলমগীর হোসেন, ইউপি চেয়ারম্যান ওমর ফারুক মৃধা, বিদ্যুৎ আলম মোড়ল, শহিদুল ইসলাম প্রমূখ।#