সিরাজদিখানে গাঁজা সেবনের অভিযেগে ৪ ব্যক্তির কারাদন্ড

আরিফ হোসেন হারিছ, সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ)
মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে ভ্রম্যমান আদালতের অভিযানে ৪ ব্যক্তিকে গাঁজা সেবনের অভিযোগে কারদন্ড ও অপর এক ব্যক্তিকে হেরোইন রাখার অভিযোগে নিয়মিত মামলা দেয়া হয়েছে। সোমবার পৃথক এ দু’টি ভ্রম্যমান আদালত পরিচালনা করেন সিরাজদিখান উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাসনিম আক্তার।
নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট তাসনিম আক্তার এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, সোমবার সকাল ১১ টার দিকে মুন্সীগঞ্জ জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর কার্যালয়ের উপ-পরিদর্শক-মোঃ শাওন তালুকদার, উপ-পরিদর্শক-মোহাম্মদ রাশিদুল ইসলাম ও উপ-পরিদর্শক সাইফুল ইসলাম ভূঁইয়াকে সাথে নিয়ে উপজেলার কোলা ইউনিয়নের ছাতিয়ানতলী গ্রামের পরিত্যক্ত জায়গায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। এ সময় গাঁজা সেবনরত অবস্থায় মো. মোস্তাফা (৫৫), মো. মিঠু (৫৪), মোকাজ্জল হোসেন বেপারী (৫০) ও মো. রুবেল (৩২) নামে ৩ জনকে আটক করা হয়। পরে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারে মোস্তাফাকে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারদন্ড ও ৩ শ’ টাকা জরিমানা, মিঠুকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারদন্ড ও ৩ শ’ টাকা জরিমানা, মোকাজ্জলকে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ৫ শ’ টাকা জরিমানা এবং রুবেলকে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ৩ শ’ টাকা জরিমানা করা হয়। মোস্তফা শ্রীনগর উপজেলার কোলা ইউনিয়নের সুন্দরদিয়া গ্রামের মৃত তাইজদ্দিন বেপাররী পুত্র, মিঠু একই উপজেলার বেলতলী গ্রামের মৃত নুর ইসলামের পুত্র, মোকাজ্জল ওই উপজেলার দয়াহাটা মজিদপুর গ্রামের মৃত আলী হোসেন বেপারীর পুত্র এবং মোঃ রুবেল একই উপজেলার বেজগাঁও গ্রামের মৃত মজিদ শেখ পুত্র।

এর পূর্বে সকাল ৯ থেকে ১০ পর্যন্ত উপজেলার ইছাপুরা ইউনিয়নের কুসুমপুর এলাকায় চোরাচালান টাস্কফোর্স অভিযানে বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) তাসনিম আক্তার এর নেতৃত্বে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযানকালে মোঃ সুমন দেওয়ান (৪২) নিকট হতে ৬০টি পুড়িয়ায় ১০ গ্রাম হিরোইন জব্দ করা হয়। এসময় তার কাছ থেকে হেরোইন বিক্রির ২০ হাজার ৩ শ’ ৭০ টাকাও উদ্ধার করা হয়। তার বিরুদ্ধে সিরাজদিকান থানায় নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে।#